>

সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠানে পুলিশ সুপার যশোর মহোদয়ের যোগদান

সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠানে পুলিশ সুপার যশোর মহোদয়ের যোগদান

চৌগাছা থানাধীন ধূলিয়ানী সম্মিলনী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠানে পুলিশ সুপার যশোর মহোদয়ের যোগদান।

আজ ৫ মে ২০২২খ্রিঃ রোজ বৃহস্পতিবার সকাল ০৯.০০ঘটিকায় চৌগাছা থানাধীন ধূলিয়ানী সম্মিলনী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

উক্ত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন যশোর জেলার সম্মানিত পুলিশ সুপার জনাব প্রলয় কুমার জোয়ারদার, বিপিএম(বার), পিপিএম মহোদয়।

এসময় পুলিশ সুপার মহোদয়কে বিদ্যালয়টির পক্ষ হতে ফুলেল শুভেচ্ছা ও সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়। এরপর বিদ্যালয়ের পক্ষ হতে একটি র্য্যালি বের করা হয় এবং তিনি র্যালিতে যোগদান করেন। র্যালি শেষে তিনি বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে জাতীয় সঙ্গীতের সাথে পতাকা উত্তোলন অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহণ করেন।

পরবর্তীতে পুলিশ সুপার মহোদয় অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্ব আলোচনা সভায় যোগদান করেন এবং উপস্থিত সকলের উদ্দেশ্যে বক্তব্য প্রদান করেন। তিনি বক্তব্যের শুরুতেই এতো সুন্দর একটি অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ করায় আয়োজকদের ধন্যবাদ দেন। তিনি মঞ্চে উপস্থিত বিদ্যালয়ের সকল কোমলমতি শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, তোমরা বছরের শুরুতেই যে নতুন বই পাও এটা কিন্তু মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অবদান, তিনি দেশকে ডিজিটালে রুপান্তরিত করেছেন। আমাদের সময় কিন্তু বছরের শুরুতেই নতুন বই পাওয়া যেতনা। তোমাদের সকলকে উপযুক্ত শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে উপযুক্ত মানুষ হতে হবে, তোমাদের মানবিক মূল্যবোধে বলিয়ান হয়ে প্রকৃত মানুষ হতে হবে। এই মাটি ও মানুষের প্রতি গভীর টান থাকতে হবে এবং প্রযুক্তির সঠিক ব্যবহার করতে হবে কোন ভাবেই এটার অপব্যবহার করা যাবেনা।

পুলিশ সুপার মহোদয় বলেন, বাংলাদেশের অন্যতম সমস্যার মধ্যে একটি হচ্ছে সর্বনাশা মাদক, আর এই যশোর জেলাটি সীমান্তবর্তী হওয়ায় এখানে মাদকের বিচরণ রয়েছে।তিনি বলেন, আমি যশোর জেলায় যোগদানের শুরুতেই মাদকের বিরুদ্ধে একেবারে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেছিলাম এবং সেই লক্ষ বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছি। এব্যাপারে জড়িত কোন গডফাদারদের ছাড় দেয়া হবেনা। তিনি বলেন, অপসংস্কৃতির অপচর্চা কিন্তু এখনো রয়ে গেছে! সকলকে আরো বেশি সচেতন হতে হবে।

তিনি দ্ব্যর্থহীন কন্ঠে বলেন, মাদকসেবী, মাদকবিক্রেতা এবং মাদকের সাথে যাদের সক্ষতা আছে তাদের স্থান এই যশোরে হবেনা।

তিনি আরো বলেন, এই জনগণের ট্যাক্সের টাকায় আমার পোষাক এবং বেতন হয় সুতরাং তাদের শান্তিতে ও নিরাপদে বসবাসের উপযুক্ত পরিবেশ সৃষ্টি করে দেয়া আমার দায়িত্ব। আমার উপর অর্পিত সরকারি দায়িত্ব আমি অত্যন্ত সততার সহিত পালন করবো এক্ষেত্রে কোন প্রকার অপশক্তির কাছে মাথা নত করবোনা।

আমি আপনাদের পুলিশ সুপার, আমার অফিসের দরজা সব সময় আপনাদের জন্য খোলা থাকবে।

পরিশেষে তিনি আবারো এতো সুন্দর একটি অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ করায় আয়োজক কমিটির প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং বিদ্যালয়টির উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেন, মাননীয় উপাচার্য, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় মহোদয় এবং অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন আলহাজ্ব মোঃ মহসিন আলী, প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক ধূলিয়ানী সম্মিলনী মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও প্রধান সমন্বয়কারী সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠান কমিটি।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন অন্যান্য বিশেষ অতিথিবৃন্দ, বিদ্যালয়ের শিক্ষকমন্ডলী এবং বিদ্যালয়ের বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীবৃন্দ।

District Police Jashore

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!